mainpageads

প্রষ্ফুটিত হবার আগেই বিদায় তরুণ সংগঠক আতাউরের

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সামাজিক সংগঠক আতাউর রহমান সড়ক দূর্ঘটনায় আহত টানা ৮দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে সোমবার রাতে মারা গেছেন। ২৭ বছর বয়সী বিনয়ী এই তরুণ সংগঠন রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মঙ্গলবার তাকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার কাজিপাড়া গোরস্থানে নামাজে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হয়।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার কাজীপাড়া গ্রামের মো.সিরাজুল ইসলামের ছেলে মেধাবী ছাত্রনেতা আতাউর গত ২৩ এপ্রিল সন্ধ্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের নতুন বাস টার্মিনাল এলাকায় মোটর সাইকেলযোগে যাবার সময় একটি দ্রুতগামী ট্রাকের চাপায় গুরুতর আহত হন। মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত আতাউরকে রাতেই রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ-তে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে ৮ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ার পর সোমবার রাত সোয়া বারটায় তাঁকে মৃত ঘোষনা করেন চিকিৎসকরা। তাঁর মৃত্যু সংবাদে রাতেই রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ছুটে যান কেন্দ্রীয়,রাজশাহী জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। তাঁর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। এক বার্তায় কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। ভোরে তাঁর লাশ চাঁপাইনবাবগঞ্জে নিয়ে আসা হলে সাবেক ও বর্তমান ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা তাঁকে একনজর দেখার জস্য ভিড় করেন ও জানাজায় অংশ নেন। স্থানীয় জনগনের সঙ্গে নাজাজে জানাজায় অংশ নেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিমুদ্দিন, সদর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জিয়াউর রহমান তোতা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর জিয়াউর রহমান আরমান, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা লেলিন প্রামাণিক, আসাদুজ্জামান রিপন, জুয়েল রানা, আবু হাসনাত সুমন, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাকিউল ইসলাম শাকিল, সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রেজা ইমন, সাংগঠনিক সম্পাদক মারুফ আহম্মেদ শাওনসহ রাজশাহী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হুদা অলক দুপুরে আতাউর রহমানের বাড়িতে গিয়ে শোক সন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।
উল্লেখ্য, দরিদ্র পরিবারের সন্তান আতাউর রহমান চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী কলেজ থেকে অনার্স ও ঢাকা কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে ১ম ¤্রনেী সহ মাষ্টার্স পাশ করেন। ছাত্র রাজনীতির পাশাপাশি তিনি সামাজিক সংগঠকও ছিলেন। প্রগতিশীল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রতিশ্রুতি, জেজেডি (যায়যায়দিন) ফ্রেন্ডস ফোরাম, কালের কণ্ঠের শুভ সংঘের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তাঁর হাত ধরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে তৈরী হয়েছিল ‘চরাঞ্চাল ছাত্র কল্যাণ সমিতি’।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ নিউজ/ নিজস্ব প্রতিবেদক/ ০২-০৫-১৭

,