mainpageads

আইনমন্ত্রী বললেন, সুদক্ষ বিচার বিভাগের জন্য সুদক্ষ বিচারক প্রয়োজন ❀ প্রশিক্ষণে অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন ৫৪০ বিচারক

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, শেখ হাসিনার সরকার বিশ্বাস করে যে বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য, বাংলাদেশের গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠার জন্য সবচেয়ে বড় প্রয়োজন আইনের শাসন। কারণ আইনের শাসন, গণতন্ত্র এবং উন্নয়ন পরষ্পরের সঙ্গে সর্ম্পকযুক্ত। তাই সরকার আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় অবিচল রয়েছে, অবিচল থাকবে। তিনি বলেন, সুদক্ষ বিচার বিভাগের জন্য সুদক্ষ বিচারক প্রয়োজন। তাই এই স্বাধীনতার মাসে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। আগামী তিন বছওে দেশের ৫৪০ জন বিচারককে অষ্ট্রেলিয়ায় প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা।
আইন মন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতাগ্রহণের পর বিচার বিভাগের স্বাধীনতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ শুরু করে। সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনত ও উন্নয়নের জোর দিয়েছে। শেখ হাসিনার সরকার ২ হাজার ৩৮৮ কোটি টাকা ব্যয়ে দেশের ৪২ জেলায় চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়। ইতোমধ্যে ১২টি জেলায় ভবন নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। আরো ২৭ জেলায় ১৬২ কোটি টাকা ব্যায়ে জজ আদালত ভবনের উর্দ্ধোমুখি সম্প্রসারণ করা হচ্ছে।
তিনি আরও বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রায় ৫ হাজার মামলা রয়েছে। নতুন আদালত ভবনে ৯টি এজলাস আছে। বিচারকরা এখান ভালমত কাজ করতে পারবেন। মামলা জট কমে আসবে। এক পর্যায়ে মামলা জট থাকবেনা। তিনি বলেন, বাংলাদেশে আর কোন সন্তানকে যেন না শুনতে হয় যে, তার বাবা-মা’র হত্যার বিচার হয়নি।
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আগামী নির্বাচনে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় জনগনকে ভোট দেয়ার আহবান জানান এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আইনজীবি সমিতি ভবন নির্মানের ব্যাপারে সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন।
চাঁপাইনবাববগঞ্জের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ এনামুল বারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মইনুদ্দীন মন্ডল, জেলা প্রশাসক মাহমুদুল হাসান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আইনজীবি সমিতি’র সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন কাজল।
গণপুর্ত বিভাগের তত্বাবধানে ১২ তলা ভিত বিশিষ্ট ৪তলা এই আদালত ভবন নির্মানে ব্যয় হয়েছে ২৪ কোটি টাকা। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, শীগ্রই ৪ তলা এই ভবনের উপর আরো ৪ তলা ভবন নির্মাণ করা হবে। এর ফলে বিচারকদের বিচারিক কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নে সুবিধা বৃদ্ধি পাবে এবং মামলা জজ বহুলাংশে কমে আসবে।
এরআগে মন্ত্রী আদালত চত্বরে মন্ত্রী ‘গৌড়মতি’ নামের আমের চারা এবং আইন সচিব ‘ব্যানানা ম্যাংগো’ নামের আমের চারা রোপন করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ নিউজ/ নিজস্ব প্রতিবেদক/ ০২-০৩-১৭