mainpageads

সাবেক বিরোধী দলীয় উপনেতা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ‘নবাব’ এহসান আলী খানের চিরবিদায়

জাতীয় সংসদের সাবেক বিরোধী দলীয় উপনেতা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান প্রবীণ রাজনীতিবিদ, নাট্যব্যক্তিত্ব ও ক্রীড়া সংগঠক এহসান আলী খানকে শনিবার দুপুরে নামাজে জানাজা শেষে চিরবিদায় জানানো হয়েছে। সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর পর তাকে ফকিরপাড়া গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।
শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকার সেন্ট্রাল হাসপাতালে মারা যাওয়া বর্ষিয়ান এই জননেতার মরদেহ শনিবার সকালে তার শহরের পাঠানপাড়াস্থ বাস ভবনে নিয়ে আসা হয়। মরদেহ আসার পর সেখানে হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। নানা শ্রেণী পেশার মানুষ ছুটে যান প্রয়াত এই নেতার বাড়িতে। পরে দুপুর ১২টায় তাঁর মরদেহ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরভবনে সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবদেনের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় শহরের ফকিরপাড়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। দুপুর সোয়া দুইটায় ব্যাপক সংখ্যক মানুষের অংশগ্রহণে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় উল্লেখযোগ্য নেতৃবৃন্দ্বে মধ্যে অংশ নেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান মইনুদ্দীন মন্ডল, বর্তমান মেয়র নজরুল ইসলাম, সাবেক মেয়র আব্দুল মতিন, সাবেক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমীন, জেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি আবু নজর হোসেন খান বৃটিশ, যুগ্ম সম্পাদক ডা. সামিল উদ্দিন, বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড সদস্য সিরাজুল ইসলাম (যুগ্ম সচিব), জেলা বিএনপি উপদেষ্টা শামসুল হক, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুল আলম তোফা, নাগরিক উন্নয়ন কমিটি আহব্বায়ক সৈয়দ হোসেন আহমেদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হুদা অলক প্রমূখ। মৃতের কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় জেলা প্রশাসন ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল। পরে তাঁকে ফকিরপাড়া গোরস্থানে দাফন করা হয়।
উল্লেখ্য, শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা সেন্ট্রাল হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর মৃত্যু সংবাদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে এসে পৌঁছুলে বিভিন্ন মহলে গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। তিনি স্ত্রী, পাঁচ ছেলে, পাঁচ মেয়ে, আত্মীয় স্বজনসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর ছেলে আ্যাড. শাহনেওয়াজ আলী খাঁন পান্না জানান, দীর্ঘদিন থেকে তিনি বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।
তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসন থেকে দু’ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন।
প্রয়াত এহসান আলী খান রাজনৈতিক জীবনের পাশাপাশি ছিলেন নাট্যব্যক্তিত্ব ও ক্রীড়া সংগঠক। তিনি বহু নাটকে অভিনয় করেছেন। সিরাজদৌলা নাটকে তিনি ‘নবাব’-এর চরিত্রে অভিনয় করে ভুয়সি প্রসংশা অর্জন করেছিলেন। অনেকেই সেই সময় তাঁকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ‘নবাব’ নামে ডাকতেন।
রাজনীতিবিদ এহসান আলী খানের মৃত্যুতে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন গভীর শোক প্রকাশ করেছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ নিউজ/ নিজস্ব প্রতিবেদক/ ১১-০৩-১৭